সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
কোম্পানীগঞ্জের বিলাজুর গ্রাম থেকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মদ উদ্ধার কুষ্টিয়া বিআরটিএ অফিস এখন ঘুষ-দূর্নীতির আখড়ায় পরিণত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানালেন এমপি নূরুজ্জামান বিশ্বাস কুষ্টিয়ায় ইশারা ভাষা দিবস পালিত ট্রেনে কাটা পড়ে পথশিশুর হাত বিচ্ছিন্ন বিট পুলিশিং কার্যকর করে আইন-শৃঙ্খলা ঠিক রাখতে হবে: এসপি খাইরুল আলম পটিয়া নোঙ্গর রেস্তোরাঁয় বিদ্যুৎ শর্টসার্কিট অগ্নিকান্ড, এক লাখ টাকার ক্ষতি, আহত ১ নভেম্বরে শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচন আটঘরিয়ার ঐতিহ্য, সংগ্রাম,সংস্কৃতির প্রতীক নৌকা বাইচঃসাংসদ নুরুজ্জামান বিশ্বাস লালমনিরহাটে সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা সেমিনার ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণের সমাপনী

কক্সবাজারে ইয়াবা সম্রাট, ভূমিদস্যু ও স্বর্ণচোরা কারবারি ফজলে কাদের নোভা প্রশাসনের ধরাছোঁয়ার বাইরে

জেলা প্রতিনিধি, কক্সবাজার / ৮৪ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৪২ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার জেলার ঈদগাঁও উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ভাদীতলা (দরগাপাড়া) এলাকার নুরুল আজিমের ছেলে ভূমিদস্যু, ইয়াবা সম্রাট ও স্বর্ণ চোরাচালান সিন্ডিকেটের অন্যতম প্রভাবশালী সদস্য ফজলুল কাদের নোভা প্রশাসনের ধরাছোঁয়ার বাইরে ।

সে বেশিরভাগ সময় সৌদি আরবসহ অন্যান্য দেশে থাকলেও দেশে গড়ে তুলেছে ভুমি দখলদারিত্ব, স্বর্ণচোরা চালান ও ইয়াবার বিশাল সিন্ডিকেট। বিদেশে থেকে নিয়ন্ত্রণ করছে সে ইয়াবা ও স্বর্ণ চোরাচালান ব্যবসা।

ভাদীতলায় তার বাড়ির পাসে এক অসহায় বীর মুক্তিযোদ্ধার নিজের নামে খতিয়ান ভুক্ত ২০ শতক জায়গা দখল করে উল্টা তাদের নামে মামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন কক্সবাজার সদর উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জনাব ডাঃ শামসুল হুদা।

স্থানীয়দের অভিযোগ ফজলুল কাদের নোভাকে কেউ বাধা সৃষ্টি করার সাহস পায়না। তাকে নিয়ে এলাকার কেউ কিছু মন্তব্য করলেও তাদেরকে জীবননাশের হুমকি দিয়ে থাকেন এবং সে অপহরণ চক্রের সাথে জড়িত আছে বলে এলাকাবাসী তাকে ভয় পায় বলে এলাকাবাসীর অভিমত। ফজলুল কাদের নোভা অপহরণ চক্রের সাথে জড়িত থাকলেও তার অদৃশ্য ক্ষমতার দাপটে সমাজের সাধু বিবেচিত হয়ে আছে ফজলুল কাদের নোভা। যেকোনো সময় দেশবাসী ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অপহরণ ও মাদক বিরোধী অভিযান শুরু করলে আলোচনায় উঠে আসে তার নাম। তখন আকস্মিকভাবে পালিয়ে গিয়ে সৌদি আরবে পারি জমান। সে সৌদি আরব থেকেও পরিচালনা করেন তার এ সব অবৈধ সকল ব্যবসা।
কক্সবাজারে মেজর রাশেদ সিংহা হত্যাকাণ্ডের পর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে কিছুটা শিথিল হওয়ায় দেশের বিভিন্ন জেলায় এজেন্টের সক্রিয় করে পুরোদমে চালাতেন ইয়াবা ও স্বর্ণ চোরাচালানের ব্যবসা। এই আন্তর্জাতিক মাদক ও স্বর্ণ চোরাচালানের চক্রটি দীর্ঘদিন৬ ধরে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে মাদক ও স্বর্ণ চোরাচালানের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। এই চক্রের প্রধান ফজলুল কাদের নোভা পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারে তার আত্মীয়-স্বজন থাকার সুবাদে মিয়ানমার ও টেকনাফে গড়ে তুলে ইয়াবার শক্তিশালী সিন্ডিকেট ।

আকাশপথে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে সরবরাহ করেন স্বর্ণ চোরাচালানের ব্যবসা পরিচালনা করেন ও দেশে চলছে ইয়াবার জমজমাট ব্যবসা। অনুসন্ধানে আরও জানা যায়, মিয়ানমারে বড় মাফিয়া তার আত্মীয় হওয়ার কারণে সেখান থেকে ইয়াবা ও স্বর্ণ পেতে তার কষ্ট হয়না। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশকয়েকজন জানান ঈদগাঁও ইউনিয়ন এর ৭ নম্বর ওয়ার্ডকে ইয়াবার স্বর্গরাজ্যে পরিণত করার নেপথ্য এই ফজলুল কাদের নোভা। সে এমন একজন সব সময় প্রশাসনের ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যায়। এলাকার লোকজন জানান, ফজলুল কাদের নোভা এখন বিদেশে বসে চালিয়ে যাচ্ছে ইয়াবা ও স্বর্ণ চোরাকারবার। সরকার দলীয় স্থানীয় এক নেতার ছত্রছায়ায় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে এ ব্যবসা চলছে।
এলাকাবাসী এ চিহ্নিত অপরাধী ইয়াবা সম্রাট ফজলকে গ্রেফতারের দাবি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!