সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
কুষ্টিয়া বিআরটিএ অফিস এখন ঘুষ-দূর্নীতির আখড়ায় পরিণত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানালেন এমপি নূরুজ্জামান বিশ্বাস কুষ্টিয়ায় ইশারা ভাষা দিবস পালিত ট্রেনে কাটা পড়ে পথশিশুর হাত বিচ্ছিন্ন বিট পুলিশিং কার্যকর করে আইন-শৃঙ্খলা ঠিক রাখতে হবে: এসপি খাইরুল আলম পটিয়া নোঙ্গর রেস্তোরাঁয় বিদ্যুৎ শর্টসার্কিট অগ্নিকান্ড, এক লাখ টাকার ক্ষতি, আহত ১ নভেম্বরে শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচন আটঘরিয়ার ঐতিহ্য, সংগ্রাম,সংস্কৃতির প্রতীক নৌকা বাইচঃসাংসদ নুরুজ্জামান বিশ্বাস লালমনিরহাটে সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা সেমিনার ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণের সমাপনী তালুক শাখাতী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫ শতাধিক গাছের চারা বিতরণ

ছাতকের নারী কাউন্সিলর কাকলীর উপর ৬২লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত

মানিক মিয়া, বিশেষ প্রতিনিধি / ১৩৫ বার পঠিত
আপডেট : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ
তাসলিমা জান্নাত কাকলী

সুনামগঞ্জ ছাতক পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর তাসলিমা জান্নাত কাকলীর বিরুদ্ধে ক্ষমতাবলে এলাকায় চাদাঁবাজির মাধ্যমে ড্রাইবার শ্রমিকদের সংগঠনের কাছ থেকে ৬২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ সাজানো ও মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

১১ সেপ্টেম্বর (শনিবার) জেলা শাখার শ্রমিক সংগঠনের ৫ সদস্য গঠিত একটি তদন্ত কমিটির সদস্যরা সরেজমিনে ছাতক তদন্ত করতে যান। ছাতক পৌরসভার ৪, ৫, ও ৬নং ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর তাসলিমা জান্নাত কাকলীর উপর আনিত অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক প্রমাণ হয়।

সূত্রে জানা যায়, গত ৪ সেপ্টেম্বর সুনামগঞ্জ জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-১৯২৬ এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবরে ছাতক শিববাড়ী সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিকদের নাম ব্যবহার করে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয় এবং গত ৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ১টি পত্রিকায় ও অনলাইনে (ছাতকের নারী কাউন্সিলর কাকলীর ক্ষমতার অপব্যবহার-চাঁদাবাজি ৬২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ) শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদটি জেলা সংগঠনের শ্রমিকদের নজরে আসলে জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-১৯২৬ এর পক্ষ থেকে সরে জমিনে ৫ সদস্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে অভিযোগের সত্যতা যাচাই করার জন্য ছাতকের শিববাড়ী শ্রমিকবৃন্দের কার্যালয়ে সরেজমিনে গিয়ে প্রকাশ্যে সকল ড্রাইভার শ্রমিকদের উপস্থিতিতে যাচাই বাচাই করেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

এসময় অভিযোগকারী ড্রাইভার্স রাসেল তাদের আসার খবর পেয়ে লুকিয়ে পড়েন এবং নারী কাউন্সিলর কাকলি সরেজমিনে তদন্ত কমিটির সামনে উপস্থিত হন। ছাতক শিববাড়ী সিএনজি চালিত অটোরিক্সা, মিশুক ও টেক্সি-কার ড্রাইভার সংগঠনের অফিস কার্যালয়ে সকল সদস্যদের উপস্থিতে কাকলি কর্তৃক ৬২লাখ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ তদন্ত করেন জেলা তদন্ত কমিটি। দীর্ঘ ঘন্টার পর ঘন্টা তদন্ত করে এবং যাচাই বাচাই করে প্রমাণিত হয় নারী কাউন্সিলর কাকলীর উপর আনিত সকল অভিযোগ সাজানো ও মিথ্যা, বানোয়াট এবং ষড়যন্ত্র। সমাজে তাকে হে-প্রতিপন্ন করার জন্য এবং নারী কাউন্সিলর কাকলির জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে তার মানহানি ঘটানোর জন্যই একটি কুচক্র মহলের সাজানো বানোয়াট মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে এমনটি প্রমাণিত হয় তদন্ত কমিটির কাছে।

এসময় কমিটির সদস্যরা কাকলীর উপর মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদ প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তদন্ত কমিটির ৫ সদস্যরা হলেন সুনামগঞ্জ জেলা সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-১৯২৬ এর জেলা শাখার সহ-সভাপতি বাহার মিয়া, কোষাধ্যক্ষ মো. আল আমিন, সদস্য মো. আপেল মাহমুদ, চান মিয়া, জামাল মিয়া।

তদন্তকালে উপস্থিত ছিলেন সিএনজি চালিত হিউম্যান-হুইলার ড্রাইভার্স শ্রমিক ইউনিয়ন, রেজি নং-১৯২৬(১) এর ছাতক শিববাড়ী সংগঠনের সকল ড্রাইভার ও শ্রমিকবৃন্দ। এছাড়াও ভবিষ্যতে শ্রমিকদের নিয়ে কোন কাল্পনিক এবং মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক কার্যক্রমে না জরানোর জন্য সকল ড্রাইভার্স শ্রমিকদের প্রতি অনুরোধ জানান জেলা সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!