বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
ঈশ্বরদীতে অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে রেলের অভিযান একদিন পর রূপপুর রেলস্টেশন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী পেরিয়ে গেছে ৭১ বছর-এখনো রয়ে গেছে খাজা নাজিম উদ্দিনের নাম রুপপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদীতে তিনদিনব্যাপী নিটল-নিলয় এক্সপ্রেস টাটা গাড়ির মেলার উদ্বোধন পৃথক অভিযানে ১৮২৯ পিচ ইয়াবা সহ বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার গ্রেফতার ৩ বেলায়েত খান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক-সভাপতির বিরুদ্ধে নিয়োগ বানিজ্য ও অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগ রাজশাহীর জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর সাথে রেজাউল রহিম লালের সৌজন্য সাক্ষাত ঈশ্বরদীতে একদিনে ৭ দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি ঈশ্বরদীতে শেখ কামাল আন্ত:স্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ভোজ্য তেলের দাম বাড়াই ঈশ্বরদীতে সরিষার আবাদ বেড়েছে দ্বিগুণ

শিশির মাহমুদ / ১০৬ বার পঠিত
আপডেট : শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২, ১১:১৪ অপরাহ্ণ

ভোজ্য তেলের মূল্য বৃদ্ধির ফলে এ বছর পাবনার ঈশ্বরদীতে বেড়েছে সরিষার আবাদ। গত বছরের তুলনায় এবছর দ্বিগুণ জমিতে শুরু হয়েছে সরিষার চাষ। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলনের পাশাপাশি ভালো দাম পাওয়ার আশা করছেন স্থানীয় কৃষকরা। আগামীতে সরিষার চাষাবাদ আরও বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, দিগন্ত জোড়া মাঠের পর মাঠ সরিষা ক্ষেত। আমন ও বোরো ধানের মাঝের সময়ে কৃষকরা এ তেল জাতীয় ফসল চাষ করে থাকেন। বর্ষায় পানি কম হওয়ায় উপজেলার নিচু এলাকাগুলোতে এবছর পানি জমে নি, ফলে কৃষকরা আগাম জাতে সরিষা চাষ করেছেন। আগাম জাতের সরিষায় ইতিমধ্যে ফুলও এসেছে।

উপজেলার ইস্তা এলাকার সরিষা চাষি আব্দুল করিম বলেন, সরিষা চাষের ফলে পরিবারের তেলের চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি সরিষা বিক্রি করে বোরো আবাদের খরচ যোগান দিতে পারবো। ফলন ভালো হয়েছে, দাম না কমলে এবছর লাভবান হবো বলে আশা করছি।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের তথ্যমতে, এ বছর উপজেলায় সরিষার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি উৎপাদন হবে। গত বছর ঈশ্বরদীতে ৬৫০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ হয়েছিল। চলতি মৌসুমে ১ হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ ।

উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন সহ পৌর এলাকাতে প্রতিবছর সরিষার ব্যাপক চাষ হয়ে থাকে। তবে সব চেয়ে বেশি সরিষা চাষ হয় উপজেলার মুলাডুলি, দাশুড়িয়া ও ইস্তা এলাকায়।

উপজেলা সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাহামুদা মুকমাঈনা বলেন, বাজারে সয়াবিনসহ অন্যান্য ভোজ্য তেলের মূল্য বৃদ্ধির ফলে এবছর সরিষার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। গাছ দেখে বোঝা যাচ্ছে ফলন ভালো হবে। সরিষা একটি লাভজনক ঝুঁকিমুক্ত ফসল। সরিষার আবাদ বৃদ্ধিতে সরকার কৃষকদের বীজ, সার ও পরামর্শ দিয়ে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করছে ।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মিতা সরকার জানান, সরিষা চাষ সম্প্রসারণের জন্য কৃষি বিভাগ অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এ মৌসুমে সরকারিভাবে উপজেলার প্রায় ৩ হাজার ১০০ কৃষককে সরিষার বীজ ও সার সহায়তা দেওয়া হয়েছে। তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় এ বছর কৃষকরা আগ্রহী হয়ে বেশি পরিমাণ সরিষা চাষ করেছেন। আমরা আশাবাদী, আগামীতে সরিষার আবাদ আরও বৃদ্ধি পাবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!
Bengali Bengali English English Russian Russian
error: Content is protected !!